Thursday , June 21 2018
Breaking News

সবাইকে ছাড়িয়ে শীর্ষে আর্জেন্টিনা

‘যদি ফুটবল শিখতে চান, আপনাকে যেতে হবে আর্জেন্টিনায়’-অনেক বছর আগে কথাটা বলেছিলেন পেপ গার্দিওলা। কোচিং তখনো শিখছিলেন স্প্যানিশ কোচ। কথাটা বলেছিলেন দুই আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি কোচের সঙ্গে দেখা হওয়ার পর। একজন ১৯৭৮ বিশ্বকাপজয়ী কোচ সিজার লুইস মেনোত্তি, অন্যজন ফুটবলভক্তদের কাছে হয়তো ঠিক তত বড় নাম নন, তবে কোচদের ‘গুরু’-মার্সেলো বিয়েলসা।

আসলে তাই। এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপে শুধু খেলোয়াড়দেরই নয় বরং মিলন মেলা ঘটবে আর্জেন্টিনার কোচদেরও। সাম্পাওলি ছাড়াও আরো চারজন আর্জেন্টিনার কোচকে দেখা যাবে ভিন্ন দলের হয়ে। বিষয়টি খুবই চমৎকার।

আর্জেন্টিনার তো আর্জেন্টাইন ছাড়া আর কাউকে কোচ না করাই স্বাভাবিক। ফুটবলীয় গর্বের প্রশ্ন বলে কথা! সেখানে হোর্হে সাম্পাওলি আছেন, পাশাপাশি দক্ষিণ আমেরিকান আরো দুই দেশেরও কোচ আর্জেন্টাইন-কলম্বিয়ায় হোসে পেকারম্যান, পেরুতে রিকার্দো গারেকা। এর বাইরে মিসরে আছেন হেক্টর কুপার আর সৌদি আরবে হুয়ান আন্তোনিও পিজ্জি।

তা আর্জেন্টাইন কোচদের নিয়ে এত আগ্রহ কেন? সেটির একটা ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন আর্জেন্টিনাকে ১৯৭৮ বিশ্বকাপ জেতানো স্ট্রাইকার মারিও কেম্পেস, ‘ (আর্জেন্টাইন কোচদের) চারিত্রিক দৃঢ়টা, কাজটা করার মতো ব্যক্তিত্ব আছে।’ আরেকটু বিশ্লেষণ এসেছে আর্জেন্টাইন মানবসম্পদ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ‘ম্যানপাওয়ারগ্রুপে’র নির্বাহী গুস্তাভো আগিলেরার কাছ থেকে, ‘তারা নতুন ধারণার সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেন, বিশেষত অনিশ্চয়তাপূর্ণ পরিস্থিতিতে। যেকোনো সমস্যার ভালো সমাধানও খুঁজে নিতে পারেন তারা।

Facebook Comments