Thursday , June 21 2018
Breaking News

মুখোমুখি আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল, ১০২ বছরের ইতিহাসে কে কতবার এগিয়ে?

১০২ বছরের ইতিহাসে ১০২ বার মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল। এই ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত কে এগিয়ে জেনে নেওয়া যাক।

১০২ মোট ম্যাচ ১০২
৩৭ জয় ৩৯
২৬ ড্র ২৬
১৫৯ গোল ১৫৯
কোন টুর্নামেন্টে কতবার
ম্যাচ আর্জেন্টিনা ব্রাজিল ড্র
বিশ্বকাপ ৪ ১ ২ ১
বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব ৭ ২ ৩ ২
কনফেডারেশনস কাপ ১ ০ ১ ০
কোপা আমেরিকা ৩২ ১৫ ৯ ৮
প্রীতি ম্যাচ ৫৮ ১৯ ২৪ ১৫
১৩
১৯৭০ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত টানা ১৩ ম্যাচে আর্জেন্টিনার কাছে হারেনি ব্রাজিল। দুদলের লড়াইয়ে টানা সবচেয়ে বেশি ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড এটাই। এই সময়ে ৮টি ম্যাচ জিতেছে ব্রাজিল, বাকি ৫টি ম্যাচ ড্র হয়েছে।
সবচেয়ে বড় জয়
৬-১
আর্জেন্টিনা, বুয়েনস এইরেস ১৯৪০, কোপা জুলিও রোকা
৬-২
ব্রাজিল, রিও ডি জেনিরো ১৯৪৫, কোপা জুলিও রোকা
টানা জয়
১৯৭৪ বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে ১৯৭৬ সালে কোপা ডেল আতলান্তিকো পর্যন্ত টানা পাঁচ ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছিল ব্রাজিল। আর্জেন্টিনা সর্বোচ্চ টানা চার ম্যাচ জিতেছিল ১৯৪০ থেকে ১৯৪৫ সালের মধ্যে।
৩.১২

ম্যাচপ্রতি গোলসংখ্যা।
এখানেও পেলে
সবচেয়ে কম বয়সে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে খেলেছেন পেলে। ১৯৫৭ সালে ১৬ বছর ২৫৯ দিন বয়সে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই আন্তর্জাতিক অভিষেক ফুটবলসম্রাটের।

আর্জেন্টিনা দুবার টানা ছয় ম্যাচে অপরাজিত ছিল। প্রথমবার ১৯২৩ থেকে ১৯৩৯ সালের মধ্যে ও দ্বিতীয়বার ১৯৯০ থেকে ১৯৯৩ সালের মধ্যে।
হ্যাটট্রিক
আর্জেন্টিনা
ম্যানুয়েল সেওয়ানে ১৯২৫
কার্লোস পেউসেয়ে ১৯৪০
নরবার্তো মেন্দেজ ১৯৪৫
হোসে সানফিলিপ্পো ১৯৫৯
লিওনেল মেসি ২০১২
ব্রাজিল
পেলে ১৯৬৩
রিভালদো ১৯৯৯
১৬ বার ২-১
আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল দ্বৈরথ সবচেয়ে বেশি দেখেছে ২-১ গোলের ম্যাচ। ১৬টি ম্যাচের ফল ছিল ২-১। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৪টি ম্যাচ দেখেছে ২-০ ফল।

সর্বোচ্চ গোলদাতা
পেলেকে কে না চেনেন, কিন্তু এমিলিও বালদোনেদো? জাতীয় দলে শুধু ১৯৪০ সালটাই খেলেছেন। ক্যারিয়ারের ছয় ম্যাচের পাঁচটিই ব্রাজিলের বিপক্ষে। ওই ৫ ম্যাচেই তাঁর ৭ গোল!

পেলে
ব্রাজিল

বালদোনেদো
আর্জেন্টিনা
আজকের ম্যাচের আগ পর্যন্ত পরিসংখ্যান  মোহাম্মদ সোলায়ম

সংখ্যায় ১০২ বছরের ইতিহাস

মুখোমুখি

আর্জেন্টিনা ব্রাজিল

১০২ মোট ম্যাচ ১০২

৩৭ জয় ৩৯

২৬ ড্র ২৬

১৫৯ গোল ১৫৯

কোন টুর্নামেন্টে কতবার

ম্যাচ আর্জেন্টিনা ব্রাজিল ড্র

বিশ্বকাপ ৪ ১ ২ ১

বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব ৭ ২ ৩ ২

কনফেডারেশনস কাপ ১ ০ ১ ০

কোপা আমেরিকা ৩২ ১৫ ৯ ৮

প্রীতি ম্যাচ ৫৮ ১৯ ২৪ ১৫

১৩

১৯৭০ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত টানা ১৩ ম্যাচে আর্জেন্টিনার কাছে হারেনি ব্রাজিল।দুদলের লড়াইয়ে টানা সবচেয়ে বেশি ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড এটাই।এই সময়ে ৮টি ম্যাচ জিতেছে ব্রাজিল, বাকি ৫টি ম্যাচ ড্র হয়েছে।

সবচেয়ে বড় জয়

৬-১

আর্জেন্টিনা, বুয়েনসএইরেস১৯৪০, কোপাজুলিওরোকা

৬-২

ব্রাজিল, রিওডিজেনিরো১৯৪৫, কোপাজুলিওরোকা

টানাজয়

১৯৭৪বিশ্বকাপথেকেশুরুকরে১৯৭৬সালেকোপাডেলআতলান্তিকোপর্যন্তটানাপাঁচম্যাচেআর্জেন্টিনাকেহারিয়েছিলব্রাজিল।আর্জেন্টিনাসর্বোচ্চটানাচারম্যাচজিতেছিল১৯৪০থেকে১৯৪৫সালেরমধ্যে।

৩.১২

ম্যাচপ্রতি গোল সংখ্যা।

এখানেও পেলে

সবচেয়ে কম বয়সে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে খেলেছেন পেলে।১৯৫৭ সালে ১৬ বছর ২৫৯ দিন বয়সে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই আন্তর্জাতিক অভিষেক ফুটবলসম্রাটের।

আর্জেন্টিনা দুবার টানা ছয় ম্যাচে অপরাজিত ছিল।প্রথমবার ১৯২৩ থেকে ১৯৩৯ সালের মধ্যে ও দ্বিতীয়বার ১৯৯০ থেকে ১৯৯৩ সালের মধ্যে।

হ্যাটট্রিক

আর্জেন্টিনা

ম্যানুয়েল সেওয়ানে ১৯২৫

কার্লোস পেউসেয়ে ১৯৪০

নরবার্তো মেন্দেজ ১৯৪৫

হোসে সানফিলিপ্পো ১৯৫৯

লিওনেল মেসি ২০১২

ব্রাজিল

পেলে ১৯৬৩

রিভালদো ১৯৯৯

১৬বার২-১

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলদ্বৈরথসবচেয়েবেশিদেখেছে২-১গোলেরম্যাচ।১৬টিম্যাচেরফলছিল২-১।দ্বিতীয়সর্বোচ্চ১৪টিম্যাচদেখেছে২-০ফল।

সর্বোচ্চগোলদাতা

পেলেকে কে না চেনেন, কিন্তু এমিলিও বালদোনেদো? জাতীয় দলে শুধু ১৯৪০ সালটাই খেলেছেন।ক্যারিয়ারের ছয় ম্যাচের পাঁচটিই ব্রাজিলের বিপক্ষে।ওই ৫ ম্যাচেই তাঁর ৭ গোল!

পেলে

ব্রাজিল

বালদোনেদো

আর্জেন্টিনা

আজকের ম্যাচের আগ পর্যন্ত পরিসংখ্যান

Facebook Comments