Thursday , June 21 2018
Breaking News

তুরস্কে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন: জনপ্রিয়তায় এগিয়ে এরদোগান

আগামী ২৪ জুন তুরস্কে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গবেষণা সংস্থাগুলোর সাম্প্রতিক জরিপ অনুযায়ী, তুর্কি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল প্রথম দফায় শেষ হবে কিনা তার কোনো নিশ্চয়তা পাওয়া যাচ্ছে না। যদিও এসব জরিপে বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যেপ এরদোগান বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে রয়েছেন।

ওআরসি রিসার্চ সেন্টার নামে একটি গবেষণা সংস্থার সাম্প্রতিক এক জরিপ অনুযায়ী, নির্বাচনের প্রথম দফা ভোট প্রেসিডেন্ট এরদোগান ৫৩.৪ শতাংশ ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জরিপটিতে তুরস্কের ৩৭ প্রদেশের মোট ৩,৪১০ জন মানুষ অংশগ্রহণ করে। গত ২৪ মে থেকে ১ জুনের মধ্যে এই জরিপ পরিচালনা করা হয়েছিল। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার জন্য একজন প্রার্থীকে ৫১ শতাংশ ভোট পেতে হবে।

এরদোগানের ঠিক পিছনে অবস্থান করছেন রিপাবলিকান পিপলস পার্টির (সিএইচপি) প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী মোহররেম ইন্স। জরিপ অনুযায়ী তিনি ২৪ শতাংশ ভোট পেতে পারেন। ওআরসি মতে, মেরাল আকসেনারের গুড পার্টি (আইপি) ১১.৫ শতাংশ ভোট পাবে, পিকেকেপন্থী পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (এইচডিপি) সালাহাতিন ৮ শতাংশ এবং ফেলিসিটি পার্টির (এসপি) তেমেল কারামুলাগ্লু ২.১ শতাংশ ভোট পাবে।

রিমরেস রিসার্স সেন্টার নামে আরেকটি গবেষণা সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত জরিপ অনুযায়ী, এরদোগান সর্বোচ্চ সমর্থন পেতে পারেন। তবে, তাকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে হতে পারে। সংস্থাটির জরিপ অনুযায়ী, প্রথম রাউন্ডে এরদোগান ৪২.২ শতাংশ, ইন্স ২৪.৬ শতাংশ, আকসেনার ১৬.৯ শতাংশ, দেমিরতাজ ১২.৩ শতাংশ, কারামুলাগ্লু ৩.৮ শতাংশ ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এএন্ডজি গবেষণা সংস্থার জেনারেল ম্যানেজার আদিল গুর বলেছেন, যে ৫৫-৬০ শতাংশ ভোটার নির্বাচনে এরদোগানকে সমর্থন করবেন। নির্বাচনে দ্বিতীয় রাউন্ড যাওয়ার কোনো প্রয়োজন হবে না।

নির্বাচনে এরদোগান পিপলস জোটের প্রার্থী হিসেবে অংশ নিচ্ছেন। এটি ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (একেপি) ও ন্যাশনাল মোভমেন্ট পার্টির সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে।

এদিকে ইস্তাম্বুল জলপথকে (ক্যানেল) একটি ‘কৌশলগত প্রকল্প’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। নির্মাণাধীন এই জলপথটি মারমারা সাগর ও কৃষ্ণ সাগরকে সংযুক্ত করবে।
বৃহস্পতিবার ‘সিএনএন টার্ক’ এবং ‘কানাল ডি’ টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এরদোগান এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে এরদোগান বিরোধীদের দোষারোপ করে বলেন, ২৪ জুনের নির্বাচনের আগে শুধুমাত্র তার জাস্টিজ এন্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (একেপি) ভোটারদের জন্য ‘বাস্তব পরিকল্পনা ও প্রকল্পের’ প্রস্তাব করেছে। এসব প্রকল্পের উদাহরণ হিসাবে তিনি ইস্তাম্বুল জলপথকে ইঙ্গিত করেন।

এরদোগান বলেন, ‘জলপথটির নির্মাণ সম্পন্ন হলে বসফরাস প্রণালিতে জাহাজের চাপ অনেক কমে যাবে। ঐতিহাসিক সমুদ্রপথটিপথটিতে জাহাজ দুর্ঘটনার ঝুঁকিও অনেক হ্রাস পাবে। এটি একটি কৌশলগত প্রকল্প, এটি আনন্দদানের জন্য করা হয়নি। ইস্তাম্বুল নগরের পুনর্গঠনে একটি রিজার্ভ এলাকা হিসেবে আমরা ইস্তাম্বুল জলপথের দুই পাশকে ব্যবহার করব।’

এরদোগান আরো বলেন, ‘শহরের কেন্দ্রস্থলের কাছাকাছি ঝুঁকিপূর্ণ, পুরনো ভবনগুলি ভেঙে দেওয়া হবে এবং এসব ভবনের মালিকদের জন্য জলপথের কাছে নতুন বাসস্থান নির্মাণ করা হবে।’

প্রধান বিরোধী রিপাবলিকান পিপলস পার্টির (সিএইচপি) প্রেসিডেন্ট প্রার্থী, মুহাররেম ইন্সকে ইঙ্গিত করে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘বিরোধীদলগুলো কি এ ধরনের প্রকল্পের প্রস্তাব করছে? না, তারা এসব বিষয়ে কথা বলছে না। তারা কেবল সুখ এবং শান্তির প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন, যা শুধুমাত্র একটি ইচ্ছা হতে পারে। তাদের এই ইচ্ছাগুলো কিভাবে বাস্তবায়িত হবে সেব্যাপারে তারা কোনো ব্যাখ্যা দিচ্ছেন না।’

তিনি বলেন, ‘তারা বলছেন যে তারা নির্বাচিত হলে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদকে ধ্বংস করবেন। আপনার নেতাও (কেমল কিলিদডারগ্লু) একই কথা বলেছিলেন। তারপর তিনি নিজ ইচ্ছাতেই রাজপ্রাসাদে এসেছিলেন। কিন্তু আপনার সম্ভবত প্রাসাদে আসার সুযোগ হবে না।

Facebook Comments