Thursday , June 21 2018
Breaking News

ভারতে ঢুকতে দেয়া হবে না প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে!

বলিউডের নামকরা অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া। নিজ দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে পায়ের তলার জমি শক্ত করে ২০১৫ সালে হলিউডের পথে যাত্রা করেন নায়িকা। সেখানেও মোটামুটি পরিচিত মুখ প্রিয়াংকা। ইতিমধ্যে আমেরিকান টিভি সিরিজ কোয়ান্টিকোর দুটি সিজনে অভিনয়ও করে ফেলেছেন তিনি।

বর্তমানে চলছে সেই কোয়ান্টিকো সিরিজটির তৃতীয় সিজন। কিন্তু এই তৃতীয় সিজনটিতে অভিনয় করতে গিয়ে দেশদ্রোহী তকমা জুড়ে গেল সাবেক বিশ্বসুন্দরী প্রিয়াংকা চোপড়ার নামের সঙ্গে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে নিয়ে তুমুল হইচই শুরু হয়েছে।

মূল ব্যাপারটি হচ্ছে, কোয়ান্টিকোর সাম্প্রতিক এপিসোডে সন্ত্রাসবাদের আবহ তুলে ধরা হয়েছে। এপিসোডে দেখানো হয়েছে, কয়েকজন সন্ত্রাসী আমেরিকার ম্যানহাটন অঙ্গরাজ্যটি বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে। এ পর্যন্ত ঠিকই ছিল। ঝামেলার শুরু হয়েছে এ গল্পের পরবর্তী চিত্রনাট্য থেকে।

এপিসোডে দেখানো হয়েছে, ম্যাটহাটন অঙ্গরাজ্যটি যারা উড়িয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে তারা সকলেই ভারতীয়। ভারতীয় সন্ত্রাসবাদীরা আবার বোমা হামলার দোষ পাকিস্তানিদের উপরে চাপানোর চেষ্টা করছে। ব্যাস, তাতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তোপের মুখে পড়েছেন কোয়ান্টিকোর মূল চরিত্রে অভিনয় করা প্রিয়াংকা চোপড়া।

এমনিতেই ভারত ও পাকিস্তানের ম্যধকার দা-কুঁমড়া সম্পর্কের কথা জানা পুরো বিশ্বেরই। সেখানে আবার ভারতীয়দের দেখানো হয়েছে সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র হিসেবে আর পাকিস্তানকে দেখানো হয়েছে সেই ভারতেরই ষড়যন্ত্রের শিকার হওয়া একটি দেশ হিসেবে।

কোয়ান্টিকোর এমন গল্প দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, নিজের দেশকে সন্ত্রাসবাদী হিসেবে তুলে ধরার গল্পে কীভাবে রাজি হলেন প্রিয়াংকা। তার ভূমিকা দেশবিরোধী উল্লেখ তাকে দেশদ্রোহী তকমা দিয়েছেন অনেকে। অনেকে আবার এক ধাপ এগিয়ে প্রিয়াংকা অভিনীত সকল সিনেমা বয়কট করার ডাক দিয়েছেন। কেউ বলেছেন, ‘তাকে দেশেই ঢুকতে দেবো না’

Facebook Comments